1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. stvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০২:৪০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কে সড়ক দুর্ঘটনায় কলেজ শিক্ষকের মৃত্যু কবি আবদুন নূর’র ২য় কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উম্মোচন আন্তর্জাতিক সেবা দিতে ডুবাইতেও যাত্রা করলো এস. আল-মদিনা এয়ার ইন্টারন্যাশনাল সিলেটের কিন ব্রিজের পাশে আরেকটি সেতু নির্মাণ করা হবে-সিলেটে পররাষ্ট্র মন্ত্রী আইডিইবি সিলেট জেলা শাখার কমিটি গঠন মসরুর সভাপতি, রফিক সাধারণ সম্পাদক হ্যানিম্যান হোমিওপ্যাথি সোসাইটির ৮ম বর্ষপূর্তি ও সংবর্ধনা সিলেট গোলাপগঞ্জে ছাত্রলীগের সিভি সংগ্রহ, উচ্ছসিত নেতাকর্মীরা সিলেট কুমারগাঁও-বিমানবন্দর সড়কে ফোর লেন কাজের উদ্বোধন করলেন-পররাষ্ট্রমন্ত্রী আজ বিটিবিতে গান গাইবেন সংগীত শিল্পী আফতাব জুড়ীতে চলন্ত গাড়িতে হঠাৎ আগুন

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুরে যাদুকাটায় নদীর পানিতে পড়ে সহোদর নিখোঁজ

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে বুধবার, ৩০ জুন, ২০২১
  • ৩৬৭ বার পড়া হয়েছে

 

স্টাফ রিপোর্টার:

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলাধীন যাদুকাটা নদীতে পাহাড়ি ঢলের পানি দেখতে গিয়ে শিশু মিরাজুল ইসলাম (১০) ও খাইরুল ইসলাম(৭) নামের দুই সহোদর নিখোঁজ হয়েছে। ঘটনাটি ঘটে ২৯ জুন সন্ধায় উপজেলার দক্ষিনবাদাঘাট ইউনিয়নের মিয়ারচর গ্রামে। নিখুজ দুই শিশু মিয়ারচর গ্রামের মোস্তফা মিয়ার ছেলে।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও নিখোঁজ হওয়া শিশুর পরিবার সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার বিকালে আছরের নামাজের পর বাড়ি থেকে মিয়ারচর বাজারের পিচনে যাদুকাটা নদীতে পাহাড়ি ঢলের পানি দেখতে যায়। এ সময় বাজারের পিচনে বেঁধে রাখা ষ্টিলের ছোট নৌকার উপর পানি দেখতে উঠে ছোট ভাই খাইরুল। পরে তা দেখতে পেয়ে বড় ভাই মিরাজুল বাজারে তাদের দোকানে গিয়ে পিতা মোস্তফা মিয়াকে জানায় খাইরুল নৌকায় উঠে পানি দেখছে। এ সময় দোকানে ক্রেতার ভীড় থাকায় মোস্তফা মিয়া নিজে না গিয়ে মিরাজুলকে পাঠায় খায়রুলকে নিয়ে আসতে।  পরে মিরাজুল ও খাইরুল আর ফিরে আসেনি।

নিখোঁজ শিশুদের পিতা মোস্তফা মিয়া বলেন, মঙ্গলবার সন্ধায় নদীতে গোলার পানি দেখতে গিয়ে আমার দুই শিশু পুত্র ফিরে আসেনি। পরে তাদেরকে খুজতে আত্মীয় স্বজনদের বাড়ীতে গিয়েও পাওয়া যায়নি। বিষয়টি বিশ্বম্ভরপুর থানাকে জানানো হয়েছে। আজ সকালে বিশ্বম্ভরপুর ফায়ার সার্ভিস ও থানা পুলিশ যাদুকাটা নদীতে শিশু দুটি উদ্ধারে তৎপরতা চালাচ্ছে।

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা সাদি উর রহিম জাদিদ বলেন, বিষয়টি জানানোর পর আমি সকালেই থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি দল নিয়ে ঘটনার স্থল পরিদর্শন করি। পরিবারের ভাষ্য মতে দুই শিশুই নদীর পানিতে পড়ে নিখোঁজ হয়েছে। স্থানীয় ও ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় শিশু দুটিকে উদ্ধারে তৎপরতা চালানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন