1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. stvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০৫:০৬ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
নাসিরসহ ছয়জনকে আসামী করে ধর্ষন চেষ্টা মামলা করেছে চিত্র নায়িকা পরিমণী দক্ষিণ সুনামগঞ্জে পঞ্চায়েতী কবরস্থান দখলমুক্ত করলেন উপজেলা প্রশাসন দোয়ারাবাজার থানার ওসি নাজির আলম বদলী আব্দুর রশিদ হত্যার ঘটনায় চেয়ারম্যানসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা যাদুকাটা নদীর ইজারাবন্দোবস্ত বৈধ ঘোষনা করায় লাখো শ্রমিকের মুখে আনন্দের হাসি রাতের আধারে চলছে পাড় কাটার মহোৎসব: থামছে না ধোপাজান চলতি নদীতে ড্রেজার মেশিনের তান্ডব! সুনামগঞ্জে চোর ভেবে পিঠিয়ে হত্যার পর বেওয়ারিশ হিসেবে দাফনের অভিযোগ দক্ষিন সুনামগঞ্জে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে যুবক খুন তাহিরপুরে ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচীর বেকার যুবকদের দৈনিক যাতায়াত ভাতা প্রদানে অনিয়মের অভিযোগ ছাতকে চাচাত ভাইয়ের হামলায় গুরুতর আহত ব্যবসায়ী এনাম মারা গেছে, আটক ২

হেফাজত নেতা মামুনুল হক গ্রেফতার না পলাতক?

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল, ২০২১
  • ১০৬ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাস’চিব মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার না পলাতক এ নিয়ে ধু¤্রজালের সৃষ্টি হয়েছে। কেউ বলছেন গ্রেফতার আবার কেউ বলছেন পলাতক। সত্য কোনটি? সে জন্য অপেক্ষা করতে হবে আরও কিছু সময়। কেউ বলছেন যেকোনো সময় গ্রেপ্তার হতে পারেন মামুনুল হক। গত দুই দিনে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা হওয়ার পর তাকে নজরদারিতে রেখেছে পুলিশ ও র‌্যাব।

পাশাপাশি সাদা পোশাকে একাধিক গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরাও তার গতিবিধি নজরদারি করছেন বলে সুত্র নিশ্চিত করেছেন। সরকারের একাধিক মন্ত্রী গত দুই দিনে হেফাজতের তা-বের ব্যাপারে সরকারের কঠোর অবস্থানে যাওয়ার কথা বলেছেন। ঢাকা মহানগর পু’লিশের মতিঝিল বিভাগের উপকমিশনার সৈয়দ নুরুল ইসলাম বলেন, মামুনুল হককে গ্রেপ্তারে পদক্ষেপ নেয়া হবে। তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। শর্ট টাইমের মধ্যে আমরা তাকে গ্রেপ্তার অভিযান চালাবো।

আবার আসামিকে গ্রেপ্তারে সময় লাগতে পারে, খুঁজতে হবে, আসামি কোন ঠিকানায় আছেন তা জানতে হবে। তবে আমাদের সব ধরনের তৎপরতা চলছে। গত শনিবার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ এলাকায় রিসোর্ট কা-ের পর মামুনুল হক তার মোহাম্মদপুরের বাসায় আর ফেরেননি। এদিকে সন্তানদের নিয়ে তার স্ত্রী মোহাম্মদপুরের কাদেরাবাদ হাউজিং ১ নম্বর সড়কের ওই বাসা ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছেন বলে সুত্র জানায়।

মামুনুল হক শিক্ষকতা করেন মোহাম্মদপুরের জামিয়া রহমানিয়া মাদ্রাসায়। রিসোর্ট কা-ের পর গত সোমবার ওই মাদ্রাসায় হেফাজত নেতারা জরুরি বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মামুনুল হক। এরপর আর তার দেখা পাওয়া যায়নি।

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ফজলুল করিম কাসেমী জানান, মামুনুল হকের সঙ্গে সর্বশেষ দেখা হয়েছে গত সোমবার। উনি মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলেন।

এরপর আর তার সঙ্গে দেখা হয়নি। উনি কোথায় আছেন জানি না। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একটি সূত্র জানিয়েছেন, শনিবার রাতে সোনারগাঁ থেকে ফিরে মামুনুল হক পল্টনে বোনের বাসায় যান। সেখান থেকে যান মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদ্রাসায়। সেখান থেকে বসিলায়। গত সোমবার তিনি জামিয়া রাহমানিয়ায় এসেছিলেন। তাকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে। নির্দেশনা পেলেই তাকে গ্রেপ্তার করা হবে। মামুনুল হককে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে হেফাজতের একাধিক সুত্র জানিয়েছেন। পল্টন ও সোনারগাঁও থানার একাধিক মামলায় হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে গ্রেফতারে রাতভর একাধিক স্থানে অভিযান চালিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তবে, তাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযান অব্যাহত আছে; যে কোনো সময় মামুনুল হককে গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।

বুধবার (৭ এপ্রিল) সন্ধ্যা থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে মামুনুল হককে আটক  করা হয়েছে। এমন খবরের ভিত্তিতে প্রথমে হেফাজতে ইসলামের ঢাকা মহানগরীর নেতা ফজলুল করিম কাশেমীর সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ রকম খবর শোনেনি। মামুনুল হককে কেউ আটক বা গ্রেফতার করেনি। মামুনুল কোথায় আছেন জানতে চাইলে কাশেমী জানান, তার কাছে নেই। তবে এক জায়গায় আছে, বলা যাবে না। এরপর রাত যত বেড়েছে গ্রেফতার সম্পর্কিত গুঞ্জনের ডালপালা ততই ছড়িয়েছে। এক পর্যায়ে জানা যায়, ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) একটি দল মোহাম্মদপুর বছিলা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে। এই খবরের সত্যতা জানতে ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার, যুগ্ম কমিশনারসহ বেশ কয়েকজন ডিসি, এডিসি এবং সিনিয়র এসির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান, না, মামুনুল হককে গ্রেফতার করা হয়নি।

ডিবির এক কর্মকর্তা জানান, সম্ভবত তাকে র‌্যাবের হেফাজতে রাখা হয়েছে। তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়, কিন্তু খবরের সত্যতা মেলে না। পরে, মোহাম্মদপুর এলাকার কর্মরত গোয়েন্দা সংস্থার এক কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা যায়, মামুনুল হক এখনো আটক বা গ্রেফতার হননি।

বেশ কয়েক জায়গায় অভিযান চালানো হয়েছে। দিবাগত রাত আড়াইটায় তিনি জানান, এখনো অভিযান অব্যাহত আছে। অভিযানে কারা আছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, থানা পুলিশ, ডিবি পুলিশ, র‌্যাব এবং গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। তিনি আরও বলেন, সম্ভাব্য যে কয়টি জায়গায় অভিযান চালানো হবে তার মধ্যেই তাকে (মামুনুল) গ্রেফতার করা সম্ভব হবে। তবে, সেটি রাতে নাকি দিনে তা বলা যাচ্ছে না। অপর একটি সূত্র জানায়, মোহাম্মদপুর বছিলা ব্রিজ সংলগ্ন জামিয়া আরাবিয়া মাদরাসার সামনে সন্ধ্যা থেকে পুলিশ মোতায়েন ছিল। ওই মাদরাসা পরিচালনার দায়িত্বে আছেন মামুনুল হক। রাত ১১ টার দিকে পুলিশ সেখান থেকে চলে যায়। এরপর রাত ১২ টার দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে মামুনুল হককে গ্রেফতার করেছে মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ।এ বিষয়ে জানতে পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ কমিশনার হারুন অর রশীদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, মামুনুলকে গ্রেফতার করা হয়নি। যারা বলেছে তারা রং মেসেজ দিয়েছে।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন