1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. stvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০৭:০২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
বন্যার্থদের পাশে সিলেট বিল্ডাস ও শামীমাবাদ যুব সমাজ দি ডেইলী বাংলাদেশ টুডে পরিবারের অর্থায়নে ছাতকে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ফতেপুরে বন্যার্তদের মাঝে বিশ্বাস বিল্ডার্স লিমিটেডের খাবার ও কাপড় বিতরণ বন্যায় কবলিত মানুষের পাশে কর্ম সেবা সংস্থা কোস্ট গার্ডের সহায়তায় নতুন জীবন পেল আলীপুরের গৃহবধু হোসনে আরা সুনামগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড এর ত্রাণ বিতরণ সুনামগঞ্জে ত্রাণ বিতরণ করছেন ঢাকা দক্ষিনের আ’লীগ নেতা শেখ মো: আজাহার বন্যায় মোকাবেলায় জনপ্রতিনিধি গ্রামবাসী, প্রশাসন ও পুলিশ একসাথে কাজ করতে হবে- বেনজির আহমদ ভয়াবহ বন্যায় র‌্যাব মানুষের পাশে ছিল পাশে থাকবে- ডিজি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বন্যার্ত মানুষের জন্য যা করনীয় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তাই করছে- লে.জে.সফিউদ্দিন আহমদ

হাওরজুড়ে সোনালী ফসল, কৃষকের মুখে হাসি

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল, ২০২১
  • ৮৪ বার পড়া হয়েছে

ছায়াদ হোসেন সবুজ:

নতুন ধানের সঙ্গে মিশে আছে হাওর জনপদ দক্ষিণ সুনামগঞ্জের কৃষকদের স্বপ্ন। ক্ষেত জুড়ে উঁকি দিচ্ছে সোনালী ধানের শীষ। বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে এখন পাকা ধানের ঘ্রাণ বইছে। করোনার শঙ্কার মধ্যেও ফসল ঘরে তোলার আশায় প্রতিটি কৃষক পরিবারের চোখে মুখে লেগে আছে সোনালী স্বপ্ন পূরনের ছাপ।

দু একদিন পরেই এ উপজেলার প্রতিটি গ্রামের কৃষকরা ক্ষেতের স্বপ্নের সোনালী ধান কাটা শুরু করবে পুরোধমে। ইতিমধ্যে আগাম জাতের ধান কাটা শুরু করেছেন কৃষকরা। প্রাকৃতিক দুর্যোগ কিংবা কোন বিপর্যয় না ঘটলে গোলা ভরে উঠবে এমন আশায় দিন গুনছেন তারা।

সরেজমিনে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, প্রত্যন্ত গ্রাম-গায়ের কৃষকরা ইতিমধ্যেই ধান কাটা শুরু করেছেন। কেউ কেউ আবার ক্ষেতের পরিচর্যায় ব্যস্ত রয়েছে। তবে কখন নতুন ধান ঘরে তুলবে এ স্বপ্নে বিভোর কৃষকরা। তবে আর কিছু দিন পর ধান কাটা শুরু হবে। ইতিমধ্যে কিছু কিছু হাওরে আগাম জাতের ধান কাটা শুরু হয়েছে। নতুন ধান ঘরে তুলতে প্রতিটি কৃষকের ঘরে ঘরে চলছে প্রস্তুতি। ধান শুকানোর জন্য খলা তৈরীতে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষাণীরা। বিভিন্ন এলাকা থেকে এসেছেন শ্রমিকরা।

কৃষক আব্দুল লতিফ জানান, অতি বৃষ্টি বা অতিরিক্ত খরা না হওয়ার কারনে এবছর তেমন কোনো সমস্যায় পরতে হয়নি। রোগ-বালাই ও পোকায় বেশি একটা আক্রমণ করতে পারেনি। তবে প্রকৃতি অনুকুলে থাকলে স্বপ্নের সোনালী ধান যথাসময়ে ঘরে তুলতে পারবে এমন আশা করেছেন তিনি। অপর এক কৃষক ছমক আলী জানান, আমি ৮ একর জমি চাষ করেছি ফসলও ভাল হয়েছে, আর দু’এক দিন পর ধান কাটা শুরু করবো। কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে আশাকরি সোনার ফসল ঘরে তুলতে পারলে লাভবান হবো।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সজীব আল মারুফ বলেন, চলতি বছরে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় ২২ হাজার ২০০ হেক্টর জমিতে ইরি-বোরো ধানের আবাদ করা হয়েছে। আমরা আশাবাদী কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে কাটা-মাড়াইয়ের কাজ শেষে কৃষকরা ভালোভাবেই ফসল ঘরে তুলে লাভবান হবেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন