1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. satvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৪৪ পূর্বাহ্ন
  •                          

হাওরাঞ্চলের কথা ইপেপার

ব্রেকিং নিউজ
ভাষা শহীদের শ্রদ্ধাঞ্জলী অর্পন করেছে বৌদ্ধ যুব পরিষদ-সিলেট অঞ্চল তাহিরপুর এলাহী বক্স উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল পূর্বক পূণ: নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের দাবী একুশের চেতনা হোক অবিনাশী সিলেটে বাস চাপায় ৬ পুলিশ সদস্যকে আহত হওয়ার ঘটনায় জড়িত ৩ আসামী গ্রেফতার সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ নেতা মাহফুজ আহমেদ সামসুলের জন্মদিন পালিত সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি’র অপসারণের দাবী মানববন্ধন সিলেটের মোগলাবাজার থানা পুলিশ কর্তৃক ২ ছিনতাইকারী আটক সুনামগঞ্জের শ্রেষ্ঠ এসআই হলেন দোয়ারাবাজার থানার মোহাম্মদ আতিয়ার জামালগঞ্জে সরকারী কাজে বাধা দানের অভিযোগে এক যুবককে ৭ দিনের দন্ডাদেশ দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত ধর্মপাশায় স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্যের বিরুদ্ধে প্রধান শিক্ষিকার ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ

হবিগঞ্জে ব্যবসায়ী হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০২৩
  • ৭০ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেস্কঃ হবিগঞ্জে ব্যবসায়ী হত্যা মামলায় আব্দুল ওয়াহিদ (৬০) নামের একজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা প্রদান করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৪ আগস্ট) অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-১ম আদালতের বিচারক মো. আজিজুল হক এ রায় দেন।

 

দণ্ডপ্রাপ্ত আব্দুল ওয়াহিদ হবিগঞ্জ সদর উপজেলার সুলতানশী গ্রামের বাসিন্দা মৃত আলিম উল্ল্যাহর ছেলে। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার সরকারি কৌঁসুলি অ্যাডভোকেট মো. মুছা মিয়া জানান, মামলায় দুই আসামির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেওয়া হয়েছিল। অপর আসামি তার ভাই আব্দুর রশিদ মারা যাওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

নিহতের ছেলে রাসেল রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, আমার বাবাকে যখন হত্যা করা হয় তখন আমি ছোট ছিলাম। বুঝতেও শিখিনি। আমরা চাই এখন যেন দ্রুত রায় কার্যকর হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ১৯৯৭ সালে কোরবানির ঈদে চামড়া ব্যবসার জন্য সদর উপজেলার সুলতানশী গ্রামের আব্দুল হাই (৪০) একই গ্রামের আব্দুল ওয়াহিদ ও তার ভাই আব্দুর রশিদকে দুই লাখ টাকা দেন। তারা তিনজন অংশীদার ভিত্তিতে ব্যবসা করেন। কথা ছিল আব্দুল ওয়াহিদ ও আব্দুর রশিদ লভ্যাংশসহ আসল টাকা বিনিয়োগকারী আব্দুল হাইকে একসঙ্গে ফেরত দিবেন। কিন্তু বেশ কয়েকদিন অতিবাহিত হলেও দেবে-দিচ্ছি বলে টালবাহানা করতে থাকেন। এক পর্যায়ে একই বছরের ১ জুন আব্দুল হাই টাকা ফেরত চাইতে যান। এ সময় আসামিরা তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করলে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই মো. আব্দুল ছফি ২ জুন মামলা করেন। পরে তদন্ত কর্মকর্তা দুজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেন। আদালত ২০ জনের স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বৃহস্পতিবার রায় দেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন