1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. satvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১:১৭ অপরাহ্ন
  •                          

হাওরাঞ্চলের কথা ইপেপার

ব্রেকিং নিউজ
বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে জেলা পুলিশের পান্তা উৎসব পালিত সুনামগঞ্জে একুশে টেলিভিশনের ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে চুরি হয়ে যাওয়া পাসপোর্ট ও মোবাইল উদ্ধার করে দিলেন এপিবিএন টিম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে মিথ্যা অপপ্রচার দোয়ারাবাজারে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের মানহানির অভিযোগে মামলা দায়ের গোলাপগঞ্জের বিশিষ্ট সমাজসেবক ফরিজ আলীকে জড়িয়ে প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের নিন্দা ও প্রতিবাদ সুনামগঞ্জে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মধ্যে কোরআন শরিফ বিতরণ বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি নির্বাচনে সিলেটের বিজয়ী হয়েছেন দুইজন  দিরাইয়ে দোকান থেকে ৬০ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার সিলেট মহানগরীর আলমপুর থেকে ১০ জুয়াড়ীকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে এসএমপি ডিবি পুলিশ সাংবাদিক পারভেজের মায়ের সু—চিকিৎসার জন্য মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে —এমপি নাদেল

হবিগঞ্জে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে রবিবার, ১৯ মার্চ, ২০২৩
  • ৬৯ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেস্ক :: হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল প্রাঙ্গণে অ্যাম্বুলেন্স পার্কিং সুবিধা, পুলিশি হয়রানি বন্ধসহ ৯ দফা দাবিতে জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন ও জেলা অ্যাম্বুলেন্স মালিক-শ্রমিক সমিতির ডাকে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট শুরু হয়েছে। আজ রোববার (১৯ মার্চ) সকাল ৬টা থেকে এই ধর্মঘট শুরু হয়। এতে যান চলাচল বন্ধ থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। তারা ক্ষোভও প্রকাশ করছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, পৌর বাস টার্মিনালে অনেক যাত্রী এসে যানবাহন না পেয়ে ফিরে যাচ্ছেন। জরুরি কাজে তারা গন্তব্যে যেতে না পেরে হতাশা প্রকাশ করছিলেন। অনেকেই কয়েকগুণ বেশি ভাড়া দিয়ে গন্তব্যে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

মাধবপুর যাওয়ার জন্য হবিগঞ্জ পৌর বাস টার্মিনালে আসেন ব্যাংক কর্মকর্তা মো. ফয়েজ উদ্দিন। তিনি বলেন, ‘সকালে কর্মস্থলে যাব, এখন এসে দেখি বাস নেই। এভাবে পূর্ব ঘোষণা ছাড়া বাস চালানো বন্ধ রাখা ঠিক না। এতে আমরা সাধারণ যাত্রীরা দুর্ভোগের শিকার হচ্ছি।’

হবিগঞ্জ জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. সজিব আলী বলেন, ‘হাসপাতাল প্রাঙ্গনে অ্যাম্বুলেন্স রাখার জায়গা থাকলেও কর্তৃপক্ষ আমাদের অ্যাম্বুলেন্স রাখতে দিচ্ছে না। তাই আমরা চাই আমাদের একটি নির্দিষ্ট স্ট্যান্ড দেয়া হোক। এছাড়াও আমাদের আরও কিছু সমস্যা রয়েছে। সেগুলো সমাধানে আমরা প্রশাসনকে নয় দফা দাবি জানিয়েছি।’

ধর্মঘটকারীরা জানান, হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে অন্তত ৪০টি প্রাইভেট অ্যাম্বুলেন্স রোগী পরিবহন করে আসছে। সম্প্রতি হাসপাতাল প্রাঙ্গণে অ্যাম্বুলেন্স পার্কিং নিষিদ্ধ করেছে কর্তৃপক্ষ। এর প্রতিবাদে এক সপ্তাহ ধরে জরুরি সেবা বন্ধ রেখে ধর্মঘট পালন করে আসছে জেলা অ্যাম্বুলেন্স মালিক সমিতি। এ ধর্মঘটের সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করে গতকাল শনিবার (১৮ মার্চ) রাতে জরুরি সভা করে পুরো জেলায় পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেয় জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন।

তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, হাসপাতাল প্রাঙ্গণে যত্রতত্র অ্যাম্বুলেন্স পার্কিংয়ের কারণে যানজটের সৃষ্টি হয়। আশঙ্কাজনক অনেক রোগী নিয়ে কোনো যানবাহন জরুরি বিভাগে যথাসময়ে আসতে পারে না। পাশাপাশি চালকরা বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজে জড়িয়ে হাসপাতালের পরিবেশ নষ্ট করেন। এসব কারণে হাসপাতালে পার্কিং নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এদিকে, ধর্মঘটকে অযৌক্তিক ও অমানবিক বলে প্রত্যাখান করেছে হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবসহ সকল সাংবাদিক। একই সাথে তাদের সংবাদ সম্মেলন বয়কট করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

শনিবার রাত ৮টায় হবিগঞ্জ প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে এক জরুরি সাধারণ সভায় অ্যাম্বুলেন্স চালকদের নৈরাজ্যের প্রতিবাদে তাদের আন্দোলনের সকল সংবাদ বর্জনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। হবিগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি মোহাম্মদ নাহিজের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ দাশ সাগরের পরিচালনায় জরুরি সাধারণ সভায় উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জে কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন