1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. satvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০২:১৩ পূর্বাহ্ন
  •                          

হাওরাঞ্চলের কথা ইপেপার

ব্রেকিং নিউজ
চরমহল্লা আইডিয়াল স্কুলের ১০৯ জন শিক্ষার্থীকে রক্তের গ্রুপ জানিয়ে দিয়েছে বাঁধন সুনামগঞ্জ সদরের টুকের বাজার ব্যবসায়ী সমিতির কমিটি সম্পূর্ণ সিসিকে মেয়র প্রার্থী হওয়া মোশতাক গ্রেফতার শিক্ষায় পিছিয়ে পড়া চা শ্রমিক সন্তানদের মূল ধারায় ফিরিয়ে আনতে কাজ করছে এফআইভিডিবি সুনামগঞ্জে ভাবীকে কুপিয়ে হত্যার ‍নায়ক আইনুলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ সহিংসতা করে কেউ পার পাবে না : ইসি আলমগীর তৃতীয় ধাপে দেশের ৮৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ কাল গাজায় মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে ডয়েচে ভেলেকে তথ্যচিত্র তৈরির আহ্বান তথ্য প্রতিমন্ত্রীর স্ত্রী-সন্তানসহ বেনজীরকে দুদকে তলব ক্রিকেট: যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশের প্রস্তুতি ম্যাচ বাতিল

সুনামগঞ্জে যুবলীগ কর্মীর হাতে আরেক যুবলীগ কর্মী ‘খুন’

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে বুধবার, ২৯ মার্চ, ২০২৩
  • ১৩১ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেস্ক :: সুনামগঞ্জের ছাতকে এক যুবলীগ কর্মীর হাতে আরেক যুবলীগ কর্মী খুন হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার (২৮ মার্চ) রাত সোয়া ৯টার দিকে ছাতক পৌরশহরের গনেশপুর খেয়াঘাটে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত যুবলীগ কর্মী লায়েক মিয়া (৪৭) পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মন্ডলীভোগ আবাসিক এলাকার মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে এবং বাংলাদেশ এক্স-ক্যাডেটস এসোসিয়েশনের সুনামগঞ্জ জেলা ইউনিটের যুগ্ম সম্পাদক। তিনি ওই ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর প্রার্থী।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ছাতক থানার এস.আই মিজানুর রহমান।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র জানায়, মঙ্গলবার রাত সোয়া ৯টার দিকে পৌরশহরের গনেশপুর খেয়াঘাটে বসে কয়েকজনের সাথে চা পান করছিলেন লায়েক মিয়া। এসময় হঠাৎ করেই মন্ডলীভোগ আবাসিক এলাকার তাজ উদ্দিনের ছেলে যুবলীগকর্মী আব্দুল কদ্দুছ শিপলু ছুরি দিয়ে লায়েকের বুকে আঘাত করে দ্রুত পালিয়ে যান। স্থানীয়রা লায়েক মিয়াকে প্রথমে ছাতক উপজেলা হাসপাতালে ও পরে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনার পর পৌরশহরে উত্তেজনা বিরাজ করছে। তবে অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঠেকাতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

স্থানীয় আরেকটি সূত্র জানায়- মন্ডলীভোগ লাল মসজিদ পরিচালনা কমিটি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে লায়েক মিয়া ও স্থানীয় এরশাদ আলী নামের একজনের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিলো। এ বিষয় নিয়ে সোমবার (২৭ মার্চ) লায়েক মিয়ার পক্ষের কাজল মিয়া ও এরশাদ আলীর নাতি শিবলু আহমদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে শিবলু আহমদকে চড়-থাপ্পড়ও মারেন কাজল মিয়া। এ নিয়ে দুদিন ধরে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিলো। এরই জের ধরে লায়েক হত্যার ঘটনা ঘটে।

ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খাঁন মুহাম্মদ মইনুল জাকির বলেন, ‘পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। হামলাকারীদের ধরতে থানা পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন