1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. satvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ০৯:৪০ পূর্বাহ্ন
  •                          

হাওরাঞ্চলের কথা ইপেপার

ব্রেকিং নিউজ
সিলেটে পাথরবাহী ট্রাকের ভিতরে ২৪৫ বস্তা ভারতীয় চিনিসহ একজনকে আটক করেছে শাহপরান থানা পুলিশ বিশ্বম্ভরপুর থানা পুলিশের উদ্যোগে বন্যার্তদের উদ্ধার ও টানা খাদ্য সামগ্রী বিতরন চালিয়ে যাচ্ছে সুনামগঞ্জের বন্যার্তদের শুকনো খাবার দিলেন ঢাকাস্থ জালালাবাদ এসোসিয়েশন গোয়াইনঘাট থানা পুলিশ কর্তৃক ১৪৩ বস্তা ভারতীয় চিনি ও পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত ২টি ট্রাকসহ একজনকে গ্রেফতার জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশের উদ্যোগে বন্যার্থদের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ কানাইঘাট থানা পুলিশ উদ্যোগে বন্যার্থদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ সিলেটের বন্যা প্রতিরোধে সুরমা নদীতে ড্রেজিংয়ের ব্যবস্থা করা হবে— পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী সিলেটে চিনি কান্ডে জড়িত থাকায় বিয়ানীবাজার ছাত্রলীগের উপজেলা ও পৌর কমিটি বাতিল করেছে কেন্দ্রীয় কমিটি মাধবপুরের মোটরসাইকেল চালক থেকে মাদক সম্রাট মানিকের উত্থানের গল্প চরমহল্লা আইডিয়াল স্কুলের ১০৯ জন শিক্ষার্থীকে রক্তের গ্রুপ জানিয়ে দিয়েছে বাঁধন

সুনামগঞ্জে ভাবীকে কুপিয়ে হত্যার ‍নায়ক আইনুলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে রবিবার, ২ জুন, ২০২৪
  • ১২ বার পড়া হয়েছে

 

বিশ্বম্ভরপুর প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় পারিবারিক কলহের জেরে আমড়িয়া গ্রামের জামাল মিয়ার বাড়ীতে শনিবার সকালে তিন ভাবিকে ছুরিকাঘাত করেছেন আইনুল হক (১৮) নামের যুবককে আটক করেছে পুলিশ। খুনের ঘটনা ঘটিয়ে খুনি আইনুল পার্শ্ববতীর্ একটি স্কুল ভবনে লুকিয়েছিল। রবিবার দুপুরে খুনি আইনুল হককে আটক করে স্থানীয়রা পুলিশে সোপদ করে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আমড়িয়া গ্রামের জামাল মিয়ার চার ছেলের মধ্যে তিন বিবাহিত। তারা একসঙ্গে বসবাস করেন। দীর্ঘদিন ধরে তাদের পরিবারে নানা বিষয়ে ঝামেলা চলে আসছিল। তারই প্রেক্ষিতে শনিবার সকাল ১০টার দিকে জামাল মিয়ার ছোট ছেলে আইনুল হক ঘরে থাকা তার তিন ভাবি স্বপ্না বেগম (৩৫), মর্জিনা বেগম (৩০) ও ইয়াসমিনকে (২৬) ধারালো ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি আঘাত করেন। তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে ঘাতক আইনুল হক পালিয়ে যান।  পরে স্থানীয়রা আহত তিন নারীকে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক স্বপ্না বেগমকে মৃত ঘোষণা করেন। অন্য দুজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। খুনের পর থেকেই ঘাতক আইনুল হক পালিয়েছিল। স্থানীয়রা তাকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেন।

বিশ্বম্ভরপুর থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শ্যামল বণিক ঘাতক আইনুল হককে গ্রেফতারে সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আসামীকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন