1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. stvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:২৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ধর্মপাশায় ছয় বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ সুরমা নদীতে সেতু নির্মানসহ বিভিন্ন দাবীতে মানববন্ধন ও লিফলেট বিতরণ চাকুরী করেন বাংলাদেশে ৫ বছর ধরে বসবাস করেন আমেরিকায় প্রধান শিক্ষিকা জেসমিন সুলতানা উন্নয়নের স্বার্থে সবাইকে মিলেমিশে থাকতে হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী  শান্তিগঞ্জে পোনামাছ অবমুক্ত করলেন পরিকল্পনামন্ত্রী নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতায় পরিকল্পনামন্ত্রী, জনগণই আমাদের সব  রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দদের সাথে অপরাজিতার মতবিনিময় তাহিরপুরে শহীদ সিরাজ লেকে পানিতে ডুবে পর্যটক নিহত  সুনামগঞ্জ সাংবাদিক ফোরামের গঠতনন্ত্র অনুমোদিত তাহিরপুরে দ্রুততম সময়ের মধ্যে দৃষ্টিনন্দন পর্যটন কেন্দ্র নির্মান করা হবে- সচিব মোকাম্মেল

সুনামগঞ্জে জাতির জনকের ৪৬তম শাহাদৎ বার্ষিকী পালিত

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে রবিবার, ১৫ আগস্ট, ২০২১
  • ৮৮ বার পড়া হয়েছে

 

স্টাফ রিপোর্টার:

বাঙ্গালী জাতির পিতা ও মহান স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৬তম শাহাদৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উদযাপনের অংশ হিসেবে হরিনাপাটির আদারবাজার এলাকায় মুজিববর্ষে প্রদত্ত ভুমিহীন ও গৃহহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছে জেলা প্রশাসন। ১৫ আগষ্ট রবিবার দুপুরে আদার বাজার এলাকায় দরিদ্রদের মাঝে খাবার প্যাকেট বিতরণ করা হয়। বিতরণ অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মো: জাহাঙ্গীর হোসেন অসহায় দরিদ্রদের মাঝে খাবার প্যাকেট তুলে দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব) বিজন কুমার সিংহ, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমরান শাহরিয়ার, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান  এড.আবুল হোসেন, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের কার্য্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী এড. কামাল উদ্দিনসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। এ সময় জেলা প্রশাসক মো: জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবসে জাতির জনকের কন্যা সফল প্রধানমন্ত্রী অসহায় দরিদ্র ও ভুমিহীনদের নিরাপদে থাকার জন্য পাকাঘর প্রদান করেছেন। আজ জাতির জনকের ৪৬তম শাহাদৎ বার্ষিকীদের ভুখা মানুষগুলোর জন্য সামান্য খাবারের ব্যবস্থা করেছেন। জেলা প্রশাসক পরে মুজিববর্ষে প্রদত্ত গৃহহীন ও ভুমিহীদের ঘর পরিদর্শন করেন। এই দিনে জাতির জনকসহ তার পরিবারের সদস্যদের নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছিল এবং খুনিরা চেয়েছিল জাতির জনকের কোন উত্তরাধিকারী যেন দেশ ও জাতির কল্যানে রাষ্ট্রক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হতে না পারে। মহান আল্লাহ তায়লার রহমতে দীর্ঘ সময় ধরে দেশ ও জাতির কল্যানে কাজ করছেন জাতির জনকের কন্যা ও সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আপনারা প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া করবেন। এ দিকে

১৯৭৫সালের ১৫ই আগস্ট শোকাহত ভয়াল এই কালো রাতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তার সহধর্মিণী শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব, সন্তানসহ নিহত সকল শাহাদাৎ বরণকারী বীর শহীদের স্মরণে সুনামগঞ্জে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। সকাল সাড়ে ৯টায় প্রথমে শহরের ঐহিত্যবাহি যাদুঘর প্রাঙ্গণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এ সময় পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমরান শাহারীয়ারসহ প্রশাসনের কর্মকর্তাও কর্মচারীবৃন্দরা। জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবীর ইমন, আওয়ামীলীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী আমজদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এড. হায়দার চৌধুরী লিটন, সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুর রহমান, সুবীর তালুকদার বাপ্টু। সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ নুরুল হুদা মুকুটের পক্ষে পরিষদের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হায়াতুন নবী, সদর সার্কেল মো. জয়নাল আবেদীন, সদর থানার ওসি মো. শহিদুর রহমানসহ পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখতের নেতৃত্বে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন। পরে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলা প্রশাসকের সম্মেন কক্ষে জাতীয় শোক দিবসে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করে জেলা প্রশাসক মো: জাহাঙ্গীর হোসেন। এসময় প্রশাসন ও রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন। সভায় বক্তারা বলেন, ১৯৭৫ সালের আজকের দিনে স্বাধীনতা বিরোধী রাজাকার ও আলবদরদের পাশাপাশি কিছু বিপদগামি সেনা অফিসারের লোভ লালবাসর কারণে ধানমন্ডির ৩২ নং বাড়িতে জাতির পিতাসহ তার পরিবারের সকল সদস্যদের নির্মমভাবে গুলি করে হত্যা করেছিল। তারা ভেবেছিল জাতির পিতার হত্যাকান্ডের মধ্যে দিয়ে এদেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রাকে চিরদিনের জন্য বাধাঁগ্রস্থ করে দিবে পারবে। কিন্তু দীর্ঘ ২১ বছর পরে জাতির পিতার উত্তরসূরী আজকের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বীরের বেশে দেশে এসে জনগণের ম্যান্ডেড নিয়ে রাষ্ট্রিয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়ে তিনযুগের বেশী সময়ে আওয়ামীলীগ সরকার দেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করতে সক্ষম হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন