1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. stvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৩:০১ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কে সড়ক দুর্ঘটনায় কলেজ শিক্ষকের মৃত্যু কবি আবদুন নূর’র ২য় কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উম্মোচন আন্তর্জাতিক সেবা দিতে ডুবাইতেও যাত্রা করলো এস. আল-মদিনা এয়ার ইন্টারন্যাশনাল সিলেটের কিন ব্রিজের পাশে আরেকটি সেতু নির্মাণ করা হবে-সিলেটে পররাষ্ট্র মন্ত্রী আইডিইবি সিলেট জেলা শাখার কমিটি গঠন মসরুর সভাপতি, রফিক সাধারণ সম্পাদক হ্যানিম্যান হোমিওপ্যাথি সোসাইটির ৮ম বর্ষপূর্তি ও সংবর্ধনা সিলেট গোলাপগঞ্জে ছাত্রলীগের সিভি সংগ্রহ, উচ্ছসিত নেতাকর্মীরা সিলেট কুমারগাঁও-বিমানবন্দর সড়কে ফোর লেন কাজের উদ্বোধন করলেন-পররাষ্ট্রমন্ত্রী আজ বিটিবিতে গান গাইবেন সংগীত শিল্পী আফতাব জুড়ীতে চলন্ত গাড়িতে হঠাৎ আগুন

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় নৌকাকে ফেল করানোর অভিযোগ তুলেএমপি রতনকে দল থেকে বহিস্কারের দাবী জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে সোমবার, ১০ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৯৬৯ বার পড়া হয়েছে

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ
সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় পাইকুরাটি ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী সংবাদ সম্মেলন করে এমপি রতন ও তার স্বজনদের দল থেকে বহিস্কার সহ তাহার বিরুদ্ধে সকল অনিয়ম ও দুনীর্তির অভিযোগে আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবী করেন। রবিবার দুপুরে ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন। এ সময় পাইকুরাটি ইউনিয়নে পরাজিত নৌকার প্রার্থী এমএমএ রেজা পহেল বলেন, এমপি রতন তার নিজ ইউনিয়ন পাইকুরাটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কিছু সংখ্যক নেতাকর্মীরা নৌকার বিরোধীতা করায় ও অবৈধভাবে ক্ষমতার অপব্যবহারে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থী মোজাম্মেল হক ইকবালকে চশমা প্রতীকে বিজয়ী ঘোষনা করিয়েছেন। এমপির নিজ কেন্দ্রে নৌকায় ভোট পড়েছে মাত্র ৫৪টি। তার চাচা আরেক বিদ্রোহী প্রার্থী রুকনুজ্জামান রোকন ঘোড়া প্রতীকে ভোট পেয়েছে ১৫১৪টি। তার ঘনিষ্ট জন হিসেবে পরিচিত উপজেলা আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত বিদ্রোহী প্রার্থী ইকবাল পেয়েছে ৫২১ ভোট। আনারস প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী পেয়েছে ৫৯টি ভোট। ভাঁটগাও, থানুরা, বেখুইজুরা ও জিংলীগড়া কেন্দ্রে আমার নৌকার ভোট চশমার বান্ডেলে ঢুকিয়ে চশমা প্রতিককে অবৈধভাবে বিজয়ী করা হয়েছে। অন্যের ফোনের মাধ্যমে এমপি নিজে প্রশাসনকে ভয় দেখিয়ে চশমাকে বিজয়ী ঘোষণা করতে হবে বলেও তিনি কোন কোন কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন। আমি পাইকুরাটি ইউনিয়নের উল্লেখিত চারটি ভোট কেন্দ্রের ভোট পুনরায় গণনা করতে এবং অবৈধ ভোট বাতিলের দাবী জানিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সুদৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এমপির নির্দেশে যারা নৌকার বিরোধীতা করেছেন তাদেরকে দল থেকে বহিষ্কার করার জন্য আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদককে অনুরোধ করছি। এমপির নির্দেশে যে সকল দলীয় নেতাকর্মীরা নৌকার বিরোধীতা করেছেন তাদের মধ্যে ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এমপির সহোদর বড় ভাই মো. হাজি মাসুদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মো. রেহান উদ্দিন তালুকদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য শাজাহান মিয়া, পাইকুরাটি ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. গোলাম মোস্তাফা, সাধারণ সম্পাদক ও এমপির চাচা মাফিজ আলী, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও এমপির সহোদর ছোট মোজাম্মেল হোসেন রোকনের বিরোধীতার কারণে পাইকুরাটি ইউনিয়নে নৌকার পরাজয় হয়েছে। পহেল আরও বলেন, ভাটগাও কেন্দ্রে নির্বাচনের দিন বিকেল চারটা পর্যন্ত ১৩শত ভোট নেওয়া হয়েছে। সেখানে ভোট গণানার পর ২০০৭টি ভোট দেখানো হয়েছে। এ বিষয়ে ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের দিন সন্ধ্যায় আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন জানিয়ে বলেন আওয়ামী লীগ ও নৌকা বিরোধী এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনকে দল থেকে বহিষ্কার করে তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত সকল অনিয়ম ও দূর্নীতির জন্য আইনগত ব্যবস্থা করার দাবীও করেন পহেল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মনজু মিয়া, ইউনিয়ন আওয়ামিলীগ সহ-সভাপতি, জয়েদ ইকবাল জিতু, ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, আব্দুল রাজ্জাক সদস্য, নুর রহমান তুষার,সাধারণ সম্পাদক উপজেলা বঙ্গবন্ধু প্রজন্ম লীগ, শাফায়াত জামিল তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক পাইকুরাটি ইউনিয়ন শ্রমিকলীগ প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন