1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. stvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০২:৪৫ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের মধ্যে নগদ অর্থ বিতরণ বন্যার্থদের পাশে সিলেট বিল্ডাস ও শামীমাবাদ যুব সমাজ দি ডেইলী বাংলাদেশ টুডে পরিবারের অর্থায়নে ছাতকে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ফতেপুরে বন্যার্তদের মাঝে বিশ্বাস বিল্ডার্স লিমিটেডের খাবার ও কাপড় বিতরণ বন্যায় কবলিত মানুষের পাশে কর্ম সেবা সংস্থা কোস্ট গার্ডের সহায়তায় নতুন জীবন পেল আলীপুরের গৃহবধু হোসনে আরা সুনামগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড এর ত্রাণ বিতরণ সুনামগঞ্জে ত্রাণ বিতরণ করছেন ঢাকা দক্ষিনের আ’লীগ নেতা শেখ মো: আজাহার বন্যায় মোকাবেলায় জনপ্রতিনিধি গ্রামবাসী, প্রশাসন ও পুলিশ একসাথে কাজ করতে হবে- বেনজির আহমদ ভয়াবহ বন্যায় র‌্যাব মানুষের পাশে ছিল পাশে থাকবে- ডিজি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন

বিপদসীমার নিচে নামল সুরমার পানি

স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট করা হয়েছে রবিবার, ২২ মে, ২০২২
  • ৪৫ বার পড়া হয়েছে

গত কয়েকদিনের ভারী বর্ষন ও পাহাড়ি ঢলে সুরমা নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও এখন নিচে নেমেছে। গত শনিবার থেকে পানি কমতে শুরু করায় সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। রোববার (২২ মে) এ অবস্থাকে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি বলে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)। পাউবো নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শামসুদ্দোহা জানান, আবহাওয়া ভালো হওয়ায় নদীর পানি কমেছে। বর্তমানে জেলায় সুরমার পানি বিপৎসীমার ১০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যা পরিস্থিতির অনেকটা উন্নতি হচ্ছে তবে ছাতকে এখনও সুরমার পানি বিপৎসীমার ৯৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়েই প্রবাহিত হচ্ছে। নদীর পানি কমে গেলেও শহরের বিভিন্ন এলাকার পানি স্থির থেকে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এতে পানিবন্দি অবস্থায় দিন কাটছে পৌর এলাকার বাসিন্দাদের। নবীনগর এলাকার কাসেম মিয়া বলেন, হঠাৎ করে পানি এসে আমাদের সবকিছু ডুবিয়ে দিয়েছে। বোরো ফসল রোদের দেখা না মিলায় পচন ধরেছে। সেই সাথে আকস্মিক বন্যায় আমাদের ইরি ফসল এখন পানির নিচে। এদিকে পৌর শহরে বাসাবাড়ির পানি কিছুটা কমলেও ড্রেনেজ ব্যবস্থা ভালো না থাকার কারনে পানি দ্রুত নামছে না বলে দাবি করেছেন বাসিন্দারা। ধোপাখালি এলাকার গিয়াস মিয়া জানান, হঠাৎ করে পানি এসে আমাদের ঘরে ঢুকে গেছে। রান্না-বান্না করার মত পরিস্থিতি নাই। খেয়ে না খেয়ে দিন কাটছে। আজ থেকে পানি কিছুটা কমতে শুরু করেছে। তবে পানি খুব ধীরগতিতে নামছে। জমে থাকা পানি ও ময়লা আবর্জনায় মারাত্মক দুর্গন্ধের সৃষ্টি হচ্ছে। পৌরসভার মেয়র নাদের বখত বলেন, ‘টানা কয়েকদিনের ভারীবর্ষন ও পাহাড়ি ঢলের কারনে অনেক আবাসিক এলাকায় পানি উঠেছে। আমরা লোকজনের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাবার পৌঁছে দিচ্ছি। খাওয়ার পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেটও দেয়া হচ্ছে সঙ্গে। এখন পানি নামতে শুরু করছে। আশা করছি বৃষ্টিপাত না হলে দ্রুতই বন্যার হাত থেকে মানুষ রেহাই পবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন