1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. satvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৫:৪২ পূর্বাহ্ন
  •                          

হাওরাঞ্চলের কথা ইপেপার

ব্রেকিং নিউজ
সিলেট নাসিং হোস্টেল যেন মিনি কারাগার! পাসপোর্ট অফিসে কোন ধরনের হয়রানী সহ্য করা হবে না— যুগ্ম সচিব নাসরিন জাহান সিলেট মহানগরীর উপশহরে হাতুড়ে ডাক্তারের বিরুদ্ধে প্রতারনার অভিযোগে মামলা রুজু জলবায়ু পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কৃষি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে— কৃষি মন্ত্রী সিলেটের সাপ্তাহিক বাংলার বারুদ পত্রিকার সাবেক প্রধান সম্পাদক ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি জহিরিয়া হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক রুহুম আমিন ছিলেন জ্ঞানের সাগর— স্মরণ সভায় বক্তারা মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে নানান অনিয়মের দায়ে আইসক্রিম উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা তাহিরপুরে কুকুরের কামড়ে নারী-পুরুষ ও শিশুসহ অন্তত ১৬ জন আহত, দ্রত ব্যবস্থা নেয়ার দাবী প্রকৌশলী হতে চায় শাহরিয়ার তায়্যিব টানা ৩য় বারের মতো শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত হলেন ওসি হারুনূর রশিদ চৌধুরী

তাহিরপুরে আ’লীগ নেতার বাড়ীতে যুবককে আটকে রেখে রাতভর পিঠিয়ে হত্যার অভিযোগ

বিশেষ প্রতিনিধি:
  • আপডেট করা হয়েছে মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২৩
  • ২৭৩ বার পড়া হয়েছে

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে রাতের আধাঁরে এক যুবককে তুলে নিয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ও তাহিরপুর কয়লা আমদানীকারক গ্রুুপের সাধারন সম্পাদক মোশারফ হোসেন তালুকদারের ঘাগটিয়া গ্রামের বাড়ীতে আটকে রাতভর পিঠিয়ে হাত পা ভেঙ্গে হত্যার অভিযোগে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে জেলা জুড়ে।

ঘটনাটি ঘটে উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ঘাগটিয়া গ্রামের মৃত সাদেক তালুকদারের পুত্র আ’লীগ নেতা মোশারফ হোসেন তালুকদারের বাড়ীতে। নিহত যুবক উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ঘাগটিয়া গ্রামের মুজিবুর মিয়া ওরফে বাটি মজিবুরের পুত্র সাকিব রহমান (২৫)।

নিহতের পিতা মুজিবুর মিয়ার অভিযোগ পূর্ব শত্রুুতার জের ধরে আমার পুত্র শাকিব রহমানকে সোমবার রাত ১১টার দিকে গ্রামের উল্লাসের মোড় থেকে মোশারফ হোসেন তালুকদারের পুত্র রাজু. মোশারফের ফুফাত ভাই নুরুজ আলী ও নুরুজ আলীর পুত্র কাহার মিয়া, রাফি মিয়া অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে যায় এবং মোশারফ হোসেন তালুকদার, জেলা পরিষদ সদস্য ও কয়লা ব্যবসায়ী মুজিবুর রহমান এর নির্দেশে রাতভর আটকে রেখে পিঠিয়ে হাত পা ভেঙ্গে দেয় এবং মারপিটের কারণে গুরুতর জখম হলে মুমুর্ষ অবস্থায় তাকে আসামী পক্ষের লোকজন সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মঙ্গলবার সকালে ভর্তি করেন এবং ভর্তির পর ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করলে আসামীরা লাশ ফেলে পালিয়ে যায়। বর্তমানে নিহত সাকিবের লাশ ওসমানী হাসপাতাল মর্গে আছে।

নিহতের স্বজনরা অনেক খোজাখুজির পর শাকিবের লাশ ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে থাকার সন্ধান পেয়েছে। এ ঘটনায় ঘাঘটিয়া গ্রামের মৃত সাদেক তালুকদারের পুত্র মোশাররফ হোসেন তালুকদার (৬৫), মোশাররফের ছোট ভাই মহিনুর (৫০), মোশাহিদ (৪৫), মোশাররফের পুত্র রাজু (৩২), মহিনুরের পুরত্র রাফি (২৯)। একই গ্রামের মোশাররফের ফুফাতো ভাই নুরুজ আলী (৫৫), তার ছেলে কাহার মিয়া (২২) ও বাহার (২৪) ঘটনার খবর পেয়ে মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে তাহিরপুর থানা পুলিশ। যুবক সাকিবের মৃত্যুর খবর পেয়ে ঘটনার সাথে জড়িতরা ঘরবাড়ী তালা দিয়ে পালিয়েছেন।

নিহতের পিতা মুজিবুর মিয়া (৪৮) জানান, সোমবার রাত ১১টার দিকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ঘাগটিয়া গ্রামের রাফি, রাজু, নুরুজ আলী ও তার ছেলে কাহার মিয়া, মহিনুর, মোশাহিদসহ অন্তত ১০/১২জন মিলে আমার ছেলেকে উল্লাসের মোড় কালর্ভাটের উপর থেকে জোরপূর্বক ধরে মোশাররফের বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে গিয়ে মোশাররফ এর নির্দেশে তারা সবাই মিলে আমার ছেলেকে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে ও নক উপড়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। খবর পেয়ে আমি রাত ১টার দিকে মোশাররফের বাড়িতে গেলে তারা আমার উপরও আক্রমণ চালায়।

পরে আত্মরক্ষার্থে আমি সেখান থেকে পালিয়ে জীবন রক্ষা করি। মঙ্গলবার সকালে পুলিশ আমাকে জানায়, আমার ছেলেকে তাহিরপুর হাসপাতালে চিকিৎসা করানো হচ্ছে। সেখানে গিয়ে আমার ছেলে সাকিবকে না পেয়ে পরে জানলাম সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে আছে। সেখানে গিয়েও ছেলের কোনো খোঁজ পেলাম না। পরে শুনলাম সিলেট ওসমানি হাসপাতালে রয়েছে। সেখানে গিয়ে ছেলেকে মৃত অবস্থায় দেখতে পাই। তিনি আরো জানান, দুই বছর আগেও মোশাররফের লোকজন আমার ঘড়বাড়ি পেট্রোল দিয়ে জ¦ালিয়ে দিয়েছিল এবং আমার ছেলেকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছিল। আমি আমার ছেলে হত্যার সুষ্ঠু বিচার চাই।

সরেজমিনে অভিযুক্ত মোশাররফের বাড়িতে গেলে সেখানে তাদের কাউকে পাওয়া যায়নি এবং ঘরবাড়ি তালা অবস্থায় দেখা গেছে। অভিযোগের বিষয়ে বক্তব্য জানতে মোশাররফ ও মুজিবুর রহমানের মোবাইল ফোনে বার বার কল দিলে বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। আরও জানা যায়, বিগত দুই বছর পূর্বে ঘাগটিয়া গ্রামের পাশের্^ যাদুকাটা নদীর তীরে নিহত শাকিবের পিতা মুজিবুর মিয়ার জমি থেকে মোশারফ বাহিনী বালি পাথর উত্তোলনে বাধা দেয়ার পর তাদের বাড়ীঘর আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছিল এবং সাকিব হাসানকেও গুরুতর আহত করেছিল। এ নিয়ে মামলা হয়েছিল।

তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ ইফতেখার হোসেন জানান, এমন একটি ঘটনা শুনেছি। বিষয়টি তদন্তনাধীন, তাই এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। তবে জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশের জোর চেষ্টা চলছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রিপন কুমার মোদক জানান, তাহিরপুরের বাদাঘাট ইউনিয়নের ঘাগটিয়া গ্রামের একজন যুবককে পিঠিয়ে হত্যার খবর পেয়েছি। ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে পুলিশ কাজ করছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন