1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. satvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৩:১৮ পূর্বাহ্ন
  •                          

হাওরাঞ্চলের কথা ইপেপার

ব্রেকিং নিউজ
চরমহল্লা আইডিয়াল স্কুলের ১০৯ জন শিক্ষার্থীকে রক্তের গ্রুপ জানিয়ে দিয়েছে বাঁধন সুনামগঞ্জ সদরের টুকের বাজার ব্যবসায়ী সমিতির কমিটি সম্পূর্ণ সিসিকে মেয়র প্রার্থী হওয়া মোশতাক গ্রেফতার শিক্ষায় পিছিয়ে পড়া চা শ্রমিক সন্তানদের মূল ধারায় ফিরিয়ে আনতে কাজ করছে এফআইভিডিবি সুনামগঞ্জে ভাবীকে কুপিয়ে হত্যার ‍নায়ক আইনুলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ সহিংসতা করে কেউ পার পাবে না : ইসি আলমগীর তৃতীয় ধাপে দেশের ৮৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ কাল গাজায় মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে ডয়েচে ভেলেকে তথ্যচিত্র তৈরির আহ্বান তথ্য প্রতিমন্ত্রীর স্ত্রী-সন্তানসহ বেনজীরকে দুদকে তলব ক্রিকেট: যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশের প্রস্তুতি ম্যাচ বাতিল

‘ডাউকি ফল্ট’-ই সিলেটের জন্য আতঙ্ক

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে বুধবার, ১৬ আগস্ট, ২০২৩
  • ৮৩ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেস্কঃ সিলেটে সোমবার (১৪ আগস্ট) রাত ৮টা ৪৯ মিনিট ২৯ সেকেন্ডে ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে।  ৫.৫ মাত্রার এই ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিলো সিলেটের কানাইঘাট ও ভারতের মেঘালয় মিলে তৈরি হওয়া ‘ডাউকি ফল্ট’ বা ‘ডাউকি চ্যুতি’। আর এই ‘ডাউকি ফল্ট’-ই সিলেটের জন্য আতঙ্ক।  কারণ- সেখানে ভূমিকম্প বাড়ছে। এটা সিলেটসহ সারা দেশে বড় ভূমিকম্পের ইঙ্গিত দিচ্ছে।

ভূমিকম্প বিশেষজ্ঞরা বলছেন- গত ২০ বছরের মধ্যে সোমবারের ভূমিকম্প ছিলো সবচেয়ে বেশি মাত্রার। ভূমিকম্পটি হয়েছে বাংলাদেশের ভূগর্ভের ডাউকি চ্যুতি নামে পরিচিত চ্যুতিরেখা বা ফাটল বরাবর। এর উৎস ছিল ঢাকা থেকে ২২৮ কিলোমিটার দূরে সিলেটের কানাইঘাট ও ভারতের আসাম সীমান্তের কাছে। ভূগর্ভের ১০ কিলোমিটার গভীরে এর উৎপত্তি। ভূমিকম্পটির কম্পন সিলেটসহ সারা দেশে বেশ অনুভূত হয়েছে। গত কয়েক বছরে ডাউকি চ্যুতিরেখায় বেশ কিছু ভূমিকম্প হয়েছে। বাংলাদেশের সিলেট ও ভারতের আসাম মিলিয়ে ডাউকি চ্যুতি পূর্ব-পশ্চিমে প্রায় তিন শ কিলোমিটার বিস্তৃত। ১৮৯৭ সালে ‘ডাউকি ফল্টে’ ৮ দশমিক ৭ মাত্রার একটি ভূমিকম্প হয়েছিল। আর এখন এটা বড় ভূমিকম্পের আশঙ্কা জাগাচ্ছে।

বিশেষজ্ঞদের বক্তব্যমতে- কোনো ভূমিকম্পের মাত্রা ৫-এর উপরে গেলে তাকে মাঝারি মাত্রার ভূমিকম্প বলা হয়। এর নিচে হলে তাকে মৃদু কম্পন হিসেবে গণ্য করা হয়। দেশে গত এক বছরে তিনটি ৫ মাত্রার বেশি ক্ষমতার ভূমিকম্প হয়েছে। সোমবারেরটির বাইরে বাকি দুটি হলো ২০২২ সালের ১৫ আগস্ট ৫ দশমিক ১ মাত্রা এবং গত ২৩ জানুয়ারি ৫ দশমিক ২ মাত্রার ভূমিকম্প। সবমিলিয়ে গত এক বছরে বাংলাদেশে ১৭টি ভূমিকম্প হয়েছে। বেশির ভাগের মাত্রা ছিল ৪ থেকে ৫-এর মধ্যে। তবে গত ২০ বছরের রেকর্ড ভেঙে সোমবার সাড়ে ৫ মাত্রার ভূমিকম্প হয়।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের হিসাবে, সবচেয়ে তীব্র ভূমিকম্পের ঝুঁকিতে রয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রামের তিনটি জেলা ও সিলেটের জৈন্তাপুর এলাকা।

এই অবস্থায় বিশেষজ্ঞরা বলছেন- সিলেটসহ সারা দেশে সচেতনতামূলক প্রস্তুতি বাড়াতে হবে এবং ভবনগুলোকে ভূমিকম্পন–সহনশীলভাবে তৈরি করতে হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন