1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. satvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১:০৯ অপরাহ্ন
  •                          

হাওরাঞ্চলের কথা ইপেপার

ব্রেকিং নিউজ
বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে জেলা পুলিশের পান্তা উৎসব পালিত সুনামগঞ্জে একুশে টেলিভিশনের ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে চুরি হয়ে যাওয়া পাসপোর্ট ও মোবাইল উদ্ধার করে দিলেন এপিবিএন টিম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে মিথ্যা অপপ্রচার দোয়ারাবাজারে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের মানহানির অভিযোগে মামলা দায়ের গোলাপগঞ্জের বিশিষ্ট সমাজসেবক ফরিজ আলীকে জড়িয়ে প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের নিন্দা ও প্রতিবাদ সুনামগঞ্জে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মধ্যে কোরআন শরিফ বিতরণ বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি নির্বাচনে সিলেটের বিজয়ী হয়েছেন দুইজন  দিরাইয়ে দোকান থেকে ৬০ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার সিলেট মহানগরীর আলমপুর থেকে ১০ জুয়াড়ীকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে এসএমপি ডিবি পুলিশ সাংবাদিক পারভেজের মায়ের সু—চিকিৎসার জন্য মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে —এমপি নাদেল

কিনব্রিজে টিনের বেড়া” চলছে সংস্কার কাজ

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০২৩
  • ৬৭ বার পড়া হয়েছে

ডেস্ক নিউজ:: কিনব্রিজে টিনের বেড়া, কতটুকু কাজের অগ্রগতি। চলছে ঐতিহ্যবাহী কিনব্রিজের সংস্কার কাজ। সংস্কার কাজ শেষে নতুন রুপে আবারও ফিরবে কিনব্রিজের। গত ১৭ আগস্ট থেকে ব্রিজটির দুই প্রবেশমুখে ব্যারিকেড দয়ে কাজ শুরু করে রেলওয়ে বিভাগ। তবে সেই ব্যারিকেড ডিঙিয়ে ব্রিজ দিয়ে আসা যাওয়া করতেন সাধারণ মানুষ। যার ফলে সংস্কা কাজের বিঘ্ন ঘটত। তাই ব্রিজের প্রবেশ মুখ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে টিন দিয়ে। ব্রিজ বন্ধ থাকায় সুরমা নদী নৌকা দিয়ে পারাপার করছেন হাজারো মানুষ।

২০১৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর ঝুকিপূর্ণ সেতুটির দুই দিকে লোহার বেষ্টনী দিয়ে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ করে সিটি করপোরেশন। তবে নাগরিকদের প্রতিবাদের মুখে বন্দের কিছুদিন পরেই যান চলাচলের জন্য সেতুটি খুলে দেয়া হয়।

ব্রিটিশ আমলে লোহার কাঠামোর দৃষ্টিনন্দন এই সেতুটি নির্মাণ করেছিল রেলওয়ে বিভাগ। টানা দুই বছর নির্মাণকাজ শেষে ১৯৩৬ সালে সেতুটি চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছিল। তৎকালীন আসাম প্রদেশের গভর্নর মাইকেল কিনের নামে এই সেতুর নামকরণ হয় কিনব্রিজ। প্রায় ৯ দশক ধরে সচল সেতুটি বাংলাদেশের অন্যতম প্রাচীন এবং সিলেট অঞ্চলে সুরমা নদীর ওপর প্রথম সেতু। এর দৈর্ঘ্য ১ হাজার ১৫০ ফুট এবং প্রস্থ ১৮ ফুট। মুক্তিযুদ্ধের সময় ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় সেতুটি ১৯৭৭ সালে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ প্রথম দফা সংস্কার করেছিল।

গত ২৫ জুলাই সেতু বন্ধের ঘোষণা দিলেও কয়েক দফা পিছিয়ে এমাসের ১৬ তারিখ থেকে ব্রিজটি বন্ধ করে কাজ শুরু করে বাংলাদেশ রেলওয়ের পূর্বাঞ্চল।

সওজ সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, কিনব্রিজের সংস্কার কাজ চলছে পুরোদমে। আবহাওয়ার কারনে কাজে বেগ পেতে হচ্ছে কিছুটা। আশা করছি দুই মাসের আগে কাজ শেষ করা যাবে। ব্রিজের দুই পাশে ব্যারিকেড দেয়া থাকলেও তা ডিঙিয়ে সাধারণ মানুষ আসা যাওয় করেতেন, যা ঝুকিপূর্ণ। তাই টিন দিয়ে প্রবেশমুখ পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন