1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. stvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:৫৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
তাহিরপুরে সমালয় চাষাবাদ কর্মসূচির উদ্বোধন দোয়ারাবাজারে উপ-নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী তানভীরের গণসংযোগ মৌলভীবাজারে বাড়িতে ঢুকে নারীসহ ২জনকে কুপিয়ে গুরুতর জখমের ঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের দুই মামলার ফেরারী হয়ে জীবন বাচাতে পালিয়ে বেড়াচ্ছে সুনামগঞ্জের বিএনপি নেতা মোঃ অলি নবী তাহিরপুরে প্রথম বার সমলয় পদ্ধতিতে চাষাবাদ কওমি শিক্ষকদের মাঝে বিনামুল্যে শীতবস্ত্র বিতরন করেছে তাহিরপুর প্রশাসস তাহিরপুর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে করোনা ও নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন নিয়ে সর্তকতামুলক সভা  জাউয়াবাজার ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী আল আমিন হত্যা মামলায় তিন সহপাঠিকে যাবৎজীবন দন্ডাদেশ দিয়েছে জেলা ও দায়রা জজ সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় নৌকাকে ফেল করানোর অভিযোগ তুলেএমপি রতনকে দল থেকে বহিস্কারের দাবী জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন এমপি রতনের নিজ কেন্দ্রে নৌকার পরাজয় নিয়ে উত্তাল হয়ে উঠছে সুনামগঞ্জের ধর্মপাশার রাজনীতি

করোনাভাইরাস: আপনার শরীরকে কীভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করে?

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে বুধবার, ১ এপ্রিল, ২০২০
  • ৩৯৬ বার পড়া হয়েছে

গত বছরের ডিসেম্বরে করোনাভাইরাস সম্পর্কে প্রথম জানা গেলেও এরই মধ্যে এই ভাইরাস এবং এর ফলে সৃষ্ট রোগ কোভিড-১৯ এর মহামারি সামাল দিতে হচ্ছে বিশ্বকে।

অধিকাংশ মানুষের জন্যই এই রোগটি খুব ভয়াবহ নয়, কিন্তু অনেকেই মারা যায় এই রোগে।

ভাইরাসটি কীভাবে দেহে আক্রমণ করে, কেন করে, কেনই বা কিছু মানুষ এই রোগে মারা যায়?

‘ইনকিউবেশন’ বা প্রাথমিক লালনকাল

এই সময়ে ভাইরাসটি নিজেকে ধীরে ধীরে প্রতিষ্ঠিত করে।

আপনার শরীর গঠন করা কোষগুলোর ভেতরে প্রবেশ করে সেগুলোর নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়ার মাধ্যমে কাজ করে ভাইরাস।

করোনাভাইরাস, যার আনুষ্ঠানিক নাম সার্স-সিওভি-২, আপনার নিশ্বাসের সাথে আপনার দেহে প্রবেশ করতে পারে (আশেপাশে কেউ হাঁচি বা কাশি দিলে) বা ভাইরাস সংক্রমিত কোনো জায়গায় হাত দেয়ার পর আপনার মুখে হাত দিলে।

শুরুতে এটি আপনার গলা, শ্বাসনালীগুলো এবং ফুসফুসের কোষে আঘাত করে এবং সেসব জায়গায় করোনার কারখানা তৈরি করে। পরে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় নতুন ভাইরাস ছড়িয়ে দেয় এবং আরো কোষকে আক্রান্ত করে।

এই শুরুর সময়টাতে আপনি অসুস্থ হবেন না এবং কিছু মানুষের মধ্যে হয়তো উপসর্গও দেখা দেবে না।

ইনকিউবেশনের সময়ের – প্রথম সংক্রমণ এবং উপসর্গ দেখা দেয়ার মধ্যবর্তী সময় – স্থায়িত্ব একেকজনের জন্য একেকরকম হয়, কিন্তু গড়ে তা পাঁচদিন।:

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন