1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. stvsunamgonj@gmail.com : Admin. :
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১১:২১ অপরাহ্ন

উজির মিয়া মৃত্যুর ঘটনায় দায়েরকৃত মামলা পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে আদালত

Reporter Name
  • আপডেট করা হয়েছে বুধবার, ২ মার্চ, ২০২২
  • ১৭০ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ  প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জে পুলিশের নির্যাতনে উজির মিয়া মৃত্যুর ঘটনায় শান্তিগঞ্জ থানার দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আদালতে দায়েরকৃত মামলাটি পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন সুনামগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ওয়াহিদুজজামান শিকদার।

বুধবার দুপুরে এ নির্দেশ দেয়া হয়।  সুত্র জানায়, গত ২৮ ফেব্রæয়ারী নিহত উজির মিয়ার ভাই ডালিম মিয়া বাদী হয়ে শান্তিগঞ্জ থানার দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে আসামী করে সুনামগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলা দায়ের করেছিল। সেই  মামলার গ্রহনযোগ্যতা শুনানী শেষে আদালত পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। মামলার বাদী পক্ষে বিজ্ঞ কৌসুলী ছিলেন সুনামগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এড, রবিউল লেইছ রোকেশ, সাবেক সভাপতি সৈয়দ শামসুল ইসলাম, সিনিয়র আইনজীবী এড. হুমায়ুন মঞ্জুর চৌধুরী, সিনিয়র আইনজীবী এড, হারু দেবনাথ প্রমুখ। এ দিকে নিহতের পরিবারের সদস্যসহ এলাকাবাসী উজির মিয়াকে হত্যার সাথে জড়িত দুই পুলিশ কর্মকর্তার দৃষ্ঠান্তুমুলক শাস্তি দাবী করে আদালত চত্বরে সকালে মানববন্ধন করে মানবাধিকার সংস্থার কর্মীরা। এ সময় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস কাউন্সিলের সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি আশিক মিয়া সিকদার, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আব্দুল জলিল, আইনজীবী মাসুক আলম, রুহুল তুহিন, মনীষ কান্তি দে মিন্টু প্রমুখ। উল্লেখ্য, গত ৯ ফেব্রæয়ারী বিনা দোষে গরু চুরির অপবাদ দিয়ে শান্তিগঞ্জ থানার শত্রুমর্দন গ্রামের বাসিন্দা উজির মিয়া তুলে নিয়ে অমানবিক নির্যাতন করে এবং চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২১ ফেব্রæয়ারী সোমবার দুপুরে তিনি মারা যান। এরপর ঘটনার সঙ্গে জড়িত পুলিশ সদস্যদের আইনের আওতায় আনার দাবিতে ওই দিন দুপুরে উপজেলার পাগলাবাজার এলাকায় লাশ নিয়ে সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ সমাবেশ ও প্রতিবাদ মিছিল করেন এলাকাবাসী। পরে জেলা প্রশাসন ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উত্তেজিত জনতাকে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ প্রত্যহার করে নেয়। পরবর্তীতে ঘটনার সাথে জড়িত এসআই দেবাশীষ সুত্রধরকে ক্লোজড করা হয়। এ সময় শান্তিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী মুক্তাদির হোসেন ছুটিতে থাকা থানার এসআই আলা উদ্দিন, এসআই র্পাডন কুমার সিংহসহ আরও কিছু পুলিশ সদস্য উজির মিয়াকে বেপক মারধর করে গুরুতর জখম করে। এদিকে উজির মিয়ার মৃত্যুর ঘটনায় সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন ও পুলিশের পক্ষ থেকে পৃথক দু’টি কমিটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন